কো-ওয়ার্কিংস্পেস মানে, একই স্থানে নানা শ্রেণীর ব্যবসায়িক বা পেশাগত মানুষের স্থান ভাগাভাগি করে কর্মউদ্যোগ প্রচেষ্টাকে বাস্তবায়িত করা। অর্থাৎ,বৃহৎ কর্মক্ষেত্রকে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত করে কার্যসিদ্ধ প্রক্রিয়াই হচ্ছে কো-ওয়ার্কিং স্পেস।

“বনিক”

“বনিক” একটি কো-ওয়ারকিং স্পেস। ঢাকার মেরুল বাড্ডায় এটি অবস্থিত। ঢাকার যে কোন প্রান্ত থেকে খুব সহজেই “বনিকে” পৌঁছানো সম্ভব। হাতির ঝিলের পাশেই দৃষ্টিনন্দন বিশাল এই কো-ওয়ার্কিং স্পেসে আপনি পাচ্ছেন পেশাগত কাজ করার আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা। কি নেই এখানে ? ২৪ ঘণ্টা হাইস্পিড নেটওয়ার্ক, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, ২৪x৭ অফিস অ্যাক্সেস, জেনারটর ব্যাকআপ, আধুনিক ডেকোরেশন, হ্যাং আউট জোন, ইউটিউব স্টুডিও , ওয়ার্শপ এবং সেমিনার রুম ইত্যাদি। এছাড়াও বিনোদনের জন্য রয়েছে স্পোর্টের সুবিধা।

বণিকের সেবা সমূহঃ

বণিক কো-ওয়ার্কিং স্পেস আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছে মোট ৬ টি প্যাকেজ। প্রতিটা প্যাকেজ সাজানো হয়েছে আপনাদের কথা বিবেচনা করে।

• বণিক সংযোগ বা বনিক মেম্বেরশিপ ।
• বণিক ভার্চুয়াল অফিস।
• বণিক ইউকেন্ডার
• বণিক হট ডেস্ক।
• বণিক ডেডিকেটেড ডেস্ক।
• বণিক প্রাইভেট অফিস।

এছাড়াও আপনি চাইলে আতিরিক্ত আন্যান্ন যে সকল সুবিধা ভোগ করতে পারেনঃ
(চার্জ প্রযোজ্য)

• মেইল সার্ভিস সুবিধা (মাসিক) ২৫০ টাকা।
• রিসিপসন সুবিধা (মাসিক) ৩,০০০ টাকা।
• কল সেন্টার এজেন্ট (প্রতি শিফট) ৫,০০০ টাকা।
• ডেডিকেটেড ফোন (মাসিক) ২৫০ টাকা।
• ভার্চুয়াল এজেন্ট (মাসিক) ৩,০০০ টাকা।
• লকার সার্ভিস (মাসিক) ৫০০ টাকা।
• পার্সোনাল স্টোরেজ (মাসিক) ১,০০০ টাকা।
• ইউটিউব স্টুডিও (প্রতি ঘণ্টা) ৩০০ টাকা।
• ডিজিটাল ক্যামারা (প্রতি শিফট/ ২ ঘণ্টা) ১,০০০ টাকা।
• ভেনচার ক্যাপিটাল
• ভারাটিয়া চুক্তি (বার্ষিক) ১২,০০০ টাকা।

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুনঃ
০১৮১১৪৮০৮৩২